Science & Tech

‘আকাশের গোপন চোখ’ – নতুন হাতিয়ার মহাকাশ বিজ্ঞানীদের

পাকিস্তানের জঙ্গি ঘাঁটিতে নজরদারি চালাতে, মহাকাশে অত্যাধুনিক উপগ্রহ পাঠাচ্ছে ভারত।

নিখুঁত ভাবে শত্রুপক্ষের উপর নজরদারি চালাতে, আগামী ২২ মে অন্ধ্রপ্রদেশের শ্রীহরিকোটা থেকে অত্যাধুনিক নজরদারি উপগ্রহ ( রিস্যাট – ২বিআর১ ) পাঠাচ্ছে ভারত। শক্তিশালী এই উপগ্রহ  রিস্যাট – ২ বিআর ১ ছবি পাঠাতে শুরু করলে, ভারত মহাসাগরে কোনোও চিনা যুদ্ধজাহাজ লুকিয়ে আছে কি না অথবা পাকিস্তানের জঙ্গি ঘাঁটিতে উগ্রপন্থীদের গতিবিধির ছবি চলে আসবে ভারতীয় মহাকাশ গবেষণা কেন্দ্রের বিজ্ঞানীদের কাছে।

                               এই উপগ্রহ রেডার অনেক শক্তিশালী হওয়ায় ; দিনের মতোই, রাতের বেলাতেও কাজ করবে এবং অনেক নিখুঁত ছবি পাঠাবে ভারতীয় মহাকাশ গবেষণা কেন্দ্রের বিজ্ঞানীদের কাছে। মেঘের আস্তরণ ভেদ করেও জঙ্গি ঘাঁটিতে দৃষ্টি রাখতে এবং নিখুঁত ছবি পাঠাতে সক্ষম এই নজরদারি উপগ্রহ। শক্তিশালী নজরদারির কারণেই অনেকে এই উপগ্রহকে ডাকেন  ‘ আকাশের গোপন চোখ ‘ বা  ‘ গুপ্তচর ‘ উপগ্রহ বলে।

                             এই শক্তিশালী উপগ্রহ কোনো একটি নির্দিষ্ট লক্ষ্যবস্তুর ছবি দিনে দুই থেকে তিনবার তুলতে পারবে। যার ফলস্বরূপ কোনও বাড়ি বা অঞ্চলে ২৪ ঘন্টার মধ্যে কী পরিবর্তন হচ্ছে , তা নির্ভুল ভাবে বলতে পারবে এই উপগ্রহ। পাকিস্তান ছাড়াও নজরদারি উপগ্রহ নজর রাখবে আরব সাগর , বঙ্গোপসাগর এবং ভারত মহাসাগরের উপর।

                             ২০০৮সালে মুম্বাইয়ে ভয়াবহ জঙ্গি হামলার পর এই ধরনের নজরদারি উপগ্রহের প্রয়োজনীতা বুঝতে পেরে তড়িঘড়ি  রিস্যাট – ১ এর আগে ২০০৯ সালের ২০ এপ্রিল ইজরায়েলে বানানো  রিস্যাট – ২ আকাশে পাঠিয়েছিল ভারত। ৩৬৫ দিন এই উপগ্রহ ভারতের সীমান্তে ৫৩৬ কিমি উচ্চতা থেকে নজর রাখে এবং সন্ধেহজনক কিছু দেখলেই , খবর পৌঁছে যায় ভারতের সেনা ও গোয়েন্দা সংস্থার কাছে। রিস্যাট – ২ উপগ্রহের সাহায্যেই ২০১৬-তে উড়িতে সার্জেকাল স্ট্রাইক বা সাম্প্রতিক বালাকোট অভিযান করা হয়েছিল।

তবে  রিস্যাট-২ এর থেকেও অনেক বেশি শক্তিশালী এই নয়া উপগ্রহ। সিন্থেটিক অ্যাপারচার রেডার ব্যবহার করার ফলে উচ্চমানের ছবি তোলা যাবে আকাশ থেকে।  

Show More

Related Articles

Back to top button
Close