West Bengal

মন্ত্রী সুব্রত মুখার্জীর প্রস্তাব : তৃণমূল ট্রেনিং দেবে বিজেপিকে , কিভাবে পুজোর ক্লাব দখল করতে হয় !

বিস্ফোরক মন্ত্রী আজ খুঁটি পুজো উপলক্ষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে বিজেপিকে পরামর্শ দেন 'এভাবে হয় না, আগে আমাদের কাছে ট্রেনিং নিক', কি ভাবে পুজোর ক্লাব দখল করতে হয়।

৬ দিন আগে রাসবিহারীতে বিজেপি নেতা অজয় অগ্নিহোত্রী শাররীক ভাবে আক্রান্ত হন , অভিযোগ তৃণমূলের দিকে। এছাড়া রাজ্য বিজেপির কয়েক জন বিভিন্ন পুজো সংঘঠনের সাথে যুক্ত হয়েছেন। এই কৌশল নিয়েছিল তৃণমূল । ২০০৬ থেকে পুজোতে প্রভাব সৃষ্টির চেষ্টা করে তৃণমূল কংগ্রেস , রেল মন্ত্রী থাকতে পাল্লা দিয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় পুজো উদ্বোধন করতেন কলকাতা শহর জুড়ে , সঙ্গে রাখতেন দলের নেতানেত্রীদের। ফলে রাজনৈতিক অবস্থানের প্রভাব সৃষ্টি করতেন আর সেই প্রভাব জনমানসে সমর্থন সৃষ্টি করতো।

এই একই লাইনে বিজেপিও চলতে চায় , কলকাতার নামকরা পূজ্য গুলো তৃণমূলের দখলে। ফলে বিজেপি এই পুজোর মধ্যে দাঁত বসাতে গেলেই আঘাত আসছে , আর এই নিয়ে সরগরম কলকাতার দূর্গা পুজো।বিজেপির তরফে টাকা পয়সার অফার থাকলেও থাকতে পারে কিন্তু বিশেষত অফার হল দিল্লী থেকে মন্ত্রী এনে উদ্বোধন করানো।আর এতেই কেও কেও মজে যাচ্ছেন তার সংখ্যাও কম নয়। আর এতেই গেছে চোটে হরিশ চ্যাটার্জী স্ট্রিট।

আজ সকালে বর্ষীয়ান নেতা ও মন্ত্রী সুব্রত মুখার্জী বলেন বিজেপি চাইলেও পশ্চিমবঙ্গের পুজোকে দখল করতে পারবে না। সকালে একডালিয়া এভারগ্রিনে খুঁটিপুজোয় ছিলেন পঞ্চায়েত মন্ত্রী ও পুজোর কর্ণধার , বলেন বিজেপির ধর্মের ভিত্তিতে রাজনীতি কটাক্ষ করলেন সুব্রত মুখোপাধ্যায়। আর একডালিয়া এভারগ্রিন সুব্রত চট্টোপাধ্যায়ের পুজো বলে খ্যাত।বিদ্যুৎমন্ত্রী শোভনদেব চট্টোপাধ্যায়ও আজকে খুঁটিপুজো অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ।শোভন বাবুও বিজেপিকে কটাক্ষ করতে ছাড়েন নি।

১৮ টি আসন পাবার পর বিজেপি সামনা সামনি টক্কর দিতে চেষ্টা চালাচ্ছে তৃণমূল কে । যখন তৃণমূলের নৌকা ডুবেছে, সেখানেই পতাকা তুলে ধরছেন বিজেপির নেতারা । লোকসভা ভোটের পরে পালা বদলের হরিক পড়েছে পাড়ায় পাড়ায় , কারণ পুজোর পরেই কলকাতা সহ রাজ্যের পৌর নির্বাচন। তার ফলে রাজনীতির ময়দানে আগামীর ফসল তোলার জন্য জমির দখল টাই মুখ্য বিষয় পূজ্য বা উৎসব টা গৌণ্য।

সুব্রত মুখার্জী বলেন বিজেপি সমন্ধে বলেন , “আগে এই বছরটা ওরা আমাদের কাছে ট্রেনিং নিক। ওরা পঞ্চায়েত, এম‌এল‌এ যে স্টাইলে দখল করছে, সেই স্টাইলে পুজো দখল করতে চাইছে। এভাবে হয় না। বিজেপি চাইলেও এরাজ্যের পুজো দখল করতে পারবে না।” শোভনদেব চট্টোপাধ্যায়ের কথাতেও একই সুর বাধা । তিনি হুঁশিয়ারি দেন, “এরাজ‍্যে পুজোয় ওভাবে কবজা করা যায় না। পুজো কবজা করতে এলে মুখ থুবড়ে পড়তে হবে বিজেপিকে।” এর উত্তরে বিজেপি নেতা অজয় অগ্নিহোত্রী যিনি রাসবিহারীর শারীরিক ভাবে আক্রান্ত হয়েছিলেন তিনি বললেন ” আমরা দখলের রাজনীতি করি না , মানুষ আমাদের কাছে আসছে। তাই মানুষের ডাকে আমরা যাবো তাতে যা হয় দেখা যাবে। ওরা তো শুধু লুট আর দুর্নীতি তা ভালো জানে। আমরা জোর করে দূর্গা পুজো সংঘঠন চাই না ” .

Tags
Show More

Related Articles

Back to top button
Close