Health

কাটছে না ডেঙ্গুর প্রকোপ। শিকার হচ্ছেন সাধারণ মানুষ !

সচেতনতা অবলম্বন করার কথা বললেও, কাজে হচ্ছে না কিছুই। উল্টে দেখা যাচ্ছে রাগের তোপ।

@ দেবশ্রী : এখনও কমেনি ডেঙ্গির দাপট। আগের মতই যথারীতি বজায় রয়েছে এই ডেঙ্গি। আবারও ডেঙ্গু জ্বরে মৃত্যু হয় একজনের। ডেঙ্গুর কবলে পড়ে প্রাণ হারান কলকাতার এক শিক্ষিকা। তাঁর নাম শরন্যা মুখোপাধ্যায়।

সরকারের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছিল তারা বাড়তি ব্যবস্থা গ্রহণ করছে, আরও বেশি সতর্ক হচ্ছেন। আর কেউ ডেঙ্গির কারনে মারা যাবে না বলা হয়েছিল, কিন্তু আবারও মারা যায় আর একজন এই এই ডেঙ্গি জ্বরের জন্যই। প্রশ্ন উঠছে যদি এতই পরিকল্পনা ও ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে সরকারের পক্ষ থেকে তাহলে কেন ডেঙ্গির দাপট কমাতে সফল নয় সরকার ?

সূত্রের মাধ্যমে জানা যায়, গত ২৫ নভেম্বর শিক্ষিকা জ্বরে আক্রান্ত হন। এরপর ২৮ নভেম্বর রক্তপরীক্ষা করলে তাতে ধরা পড়ে শিক্ষিকার ডেঙ্গু হয়েছে। পরিবারবর্গ তাঁকে স্থানীয় হাসপাতালে ভর্তি করলে ক্রমশই তাঁর অবস্থার অবনতি ঘটতে থাকে। তখন তাঁকে ঢাকুরিয়া আমরি হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়। কিন্তু গত শুক্রবার গভীর রাতে শিক্ষিকার মৃত্যু ঘটে। শিক্ষিকা শরন্যার মৃত্যুতে শোকের ছায়া নেমে এসেছে তাঁর পরিবারে।

এই নিয়ে যখন সরকার পক্ষকে জিজ্ঞাসা করা হয়, তখন জবাযে সেখান থেকে উত্তর আসে যে, আমরা মশা উৎপাদন করি না। তাই দোষটা তাদের না। যখন বিরোধী দল এই প্রশ্ন ওঠান তখন মাননীয়া মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায় বলেন, যদি সত্যিই আমরা মশা উৎপাদন করতে পারতাম তাহলে আগে আপনাদের কাছে তা পাঠাতাম। সাধারণ মানুষের কাছে না। এই নিয়ে রাজনৈতিক মহলে এখন তৈরী হয়েছে বচসা। হচ্ছে তুমুল সমালোচনা।

Tags
Show More

Related Articles

Back to top button
Close