Health

কালো টাকার দায়ে অভিযুক্ত দম্পতি চিকিৎসক।

চলছে মানুষ ঠকানোর খেলা। ডাক্তারদেরকে মানুষ ভগবান বলে মনে করেন আর এই আংশিক ডাক্তাররাই সুযোগ নিচ্ছে সাধারণ মানুষের বিশ্বাসের।

@ দেবশ্রী : দু- এক কোটি না, বেআইনিভাবে প্রায় ১০০ কোটি টাকার সম্পত্তির মালিক হয়েছিলেন হায়দরাবাদের শল্য চিকিত্‍সক দম্পতি। অভিযোগ ওঠে এই চিকিৎসক দম্পতি, হাসপাতালের জরুরী বিভাগের সমস্ত ওষুধ বাইরে মোটা টাকায় বিক্রি করত। হায়দরাবাদ পুলিশের দুর্নীতি দমন শাখার তরফে মামলা দায়ের করা হয়েছে চিকিত্‍সক দেবীকা রানি ও তাঁর স্বামী পি গুরুমূর্তির বিরুদ্ধে। শুধু তাই না, ঘুষ নেওয়ারও অভিযোগ রয়েছে এই শল্য চিকিৎসক দম্পত্তির বিরুদ্ধে। আপাতত দুই জন অভিযুক্তই জেলে রয়েছে।

হায়দরাবাদে চিকিত্‍সক দম্পতির বাড়িতে তল্লাশি চালায় দুর্নীতি দমন শাখা। এমনকি তল্লাশি চালানো হয় তীরুপতি ও কাডাপায় থাকা চিকিত্‍সক দম্পতির আত্মীয়দের বাড়িতেও। প্রাথমিক তদন্তের পর জানা গেছে, অবৈধভাবে প্রায় ১০০ কোটি টাকার মালিক ওই চিকিত্‍সক দম্পতি। তার মধ্যে জুবিলি হিলসের সাকিপেট গ্রামে একটি বিলাসবহুল বাড়িও রয়েছে অভিযুক্তদের। যার দাম আনুমানিক প্রায় ৪ কোটি টাকা। সোমাজিগুড়ার আরআরএস টাওয়ারে রয়েছে ১ কোটি ৩০ লক্ষ টাকার ফ্ল্যাট। এছাড়াও সাকিপেট এলাকাতেও চিকিত্‍সক দম্পতির রয়েছে তিনটি ফ্ল্যাট।

যার দাম আনুমানিক আড়াই কোটি টাকারও বেশি। এছাড়া তীরুপতিতে রয়েছে ১ কোটি টাকার বাড়ি। এছাড়া ১১টি জমি রয়েছে চিকিত্‍সক দম্পতির নামে। রয়েছে ৩৩ একর কৃষি জমি। এছাড়া হায়দরাবাদে বাণিজ্যিক জমিও রয়েছে ১৬টি। সব মিলিয়ে বেআইনি টাকায় ভালোই জীবন যাপন করছিল অভিযুক্ত দম্পতি।

Tags
Show More

Related Articles

Back to top button
Close