Nation

খারিজ করে দেওয়া হল প্রাণভিক্ষা, ১লা ফেব্রুয়ারিতে চার দোষীর হবে ফাঁসি।

একের পর এক আবেদন করার পরও, করা হয়েছে তা খারিজ। পাল্টিয়েছে তারিখ, তবে শাস্তি না।

@ দেবশ্রী : শেষ চেষ্টাকেও করে দেওয়া হয় খারিজ। নির্ভয়া মামলায় অভিযুক্ত মুকেশ সিং এর প্রাণভিক্ষার সর্বশেষ আবেদনটিও খারিজ করে দিলেন রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ। শেষ পর্যন্ত শাস্তি পেতে চলেছে নির্ভয়ার অপরাধীরা। দীর্ঘ সাত বছর ধরে লড়াই করে গেছে নির্ভয়ার পরিবার। মৃত্যুর শাস্তি দেওয়া হলেও বারবার পাল্টাচ্ছিল তারিখ, পাওয়া যাচ্ছিল না ফাঁসুড়ে, সব কিছু হওয়ার পরেও ফাঁসির তারিখ ও সময় জানিয়ে দেওয়া হলেও কিছুতেই যেন শেষ হচ্ছিল না এই মামলার রায়। তবে এবারে শান্তি পেতে চলেছে নির্ভয়ার আত্মা। আজ সমস্ত লড়াই জিতেছে, আশা দেবী, অর্থ্যাৎ নির্ভয়ার মা। ফাঁসি হবে চার দোষীরই।

দেশের আইন কিন্তু নিরাশ করেনি, শুধু দোষীদের নির্লজ্জতায় ভরা একের পর এক আবেদনের জেরে ন্যায় পেতে বিলম্ব হচ্ছে- পাল্টিয়েছে শাস্তির তারিখ, তবে শাস্তি নয়। ২২সে জানুয়ারির বদলে এখন ১’লা ফেব্রুয়ারি ভোর ছটার সময়ে প্রাণদণ্ডের সাজাপ্রাপ্ত চার আসামিকে ফাঁসিতে ঝোলানো হবে।

দেশের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ প্রাণভিক্ষার আবেদন খারিজ করে দেওয়ার সুপারিশ, রাষ্ট্রপতি ভবনে পাঠানোর কয়েক ঘন্টার মধ্যেই রাষ্ট্রপতি দোষী মুকেশের প্রাণভিক্ষার আবেদনটি খারিজ করে দেন। ২২ জানুয়ারি ফাঁসির দিন ধার্য হলেও শেষ মুহুর্তে ভয়ঙ্কর ঘটনার জন্য মুকেশ প্রাণভিক্ষার আবেদন করায় চার দোষীর ফাঁসির দিন পিছিয়ে দেওয়া হয়।

নির্ভয়া গণধর্ষণ কাণ্ডে দু’জন দোষীর সংশোধনী আবেদন খারিজ করে দিয়েছিল মহামান্য সুপ্রিম কোর্ট। গণধর্ষণ কাণ্ডে দোষীদের মধ্যে মুকেশ, পবন গুপ্তা, বিনয় শর্মা ও অক্ষয় ঠাকুর’কে ফাঁসির সাজা দেওয়া হয়েছে। ঘটনায় দোষী রাম সিং তিহার জেলেই আত্মহত্যা করে, নাবালক হওয়ার কারণে একজনকে সংশোধনাগারে পাঠানো হয়, পরে তাকে ছেড়ে দেওয়া হয়।

বিচারপতি এন ভি শর্মা, বিচারপতি অরুণ মিশ্র, বিচারপতি নরিম্যান, বিচারপতি আর ভানুমতি, বিচারপতি অশোক ভূষণ, দোষী বিনয় শর্মা ও মুকেশ শর্মার আবেদন খারিজ করে দেন। সংশোধনী আবেদন খারিজ হয়ে যাওয়ার পর দোষীদের মধ্যে মুকেশ প্রাণভিক্ষা চেয়ে রাষ্ট্রপতির কাছে আবেদন করেছিলেন। পবন গুপ্তা ও অক্ষয় ঠাকুর সংশোধনী আবেদন করেননি। উপ মুখ্যমন্ত্রীও জানিয়েছিলেন, তাঁর প্রশাসনের তরফেও দোষীদের আবেদন খারিজ করে দেওয়ার সুপারিশ করা হয়েছে।

তবে এখন শুধু অপেক্ষা ১লা ফেব্রুয়ারির। যেদিন সমস্ত লড়াই শেষ হবে। ১০১২ সালে ১৬ ডিসেম্বরের রাতে নির্ভয়ার সাথে মর্মান্তিক ঘটনা ঘটিয়েছিল এই চার অপরাধী, তার শাস্তি এবার তারা পাবে।

Tags
Show More

Related Articles

Back to top button
Close