Science & Tech

চন্দ্রযান-২ অভিযান নিয়ে পাক বিজ্ঞান মন্ত্রীর কটাক্ষের বিরুদ্ধে তোপ দাগলেন ডিআরডিও প্রধান !

ডিআরডিও প্রধান বললেন , 'চন্দ্রযান-২ অভিযানের জটিলতা ওরা বুঝবে কীভাবে! পাক বিজ্ঞান মন্ত্রীকে তুলোধনা করলেন। ভারত অসাধ্য সাধন করার চেষ্টাকে পাক মন্ত্রীর কটাক্ষ পাকিস্থানের নাগরিকরাই মেনে নিতে পারেনি। উল্টে প্রতিবাদ করলেন।

পাক বিজ্ঞানমন্ত্রী ফাওয়াদ চৌধুরি

যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে যায় ইসরোর সাথে বিক্রমের ফলে অবস্থান গত নির্ণয় করতে বড় সমস্যার সামনে পরে যায় ভারতের বিজ্ঞানীরা। চাঁদের মাটি থেকে ২.১ কিলোমিটার ওপরে সঙ্গে আর এরই সাথে নিখোঁজ হয়ে যায় সাময়িক ভাবে তাতেই উল্লাসে ফেটে পড়েন পাক বিজ্ঞানমন্ত্রী ফাওয়াদ চৌধুরি। সংবাদ মাধ্যমে বেরিয়ে পরে সেই খবর, তাতেই সারা বিশ্ব সহ ভারতের সমালোচনার মুখে পড়েন পাক বিজ্ঞান মন্ত্রী।

এদিকে সতীশ রেড্ডি ডিফেন্স রিসার্চ অ্যান্ড ডেভলপমন্ট অরগানাইজেশন(ডিআরডিও) প্রধান পাকিস্তানের বিজ্ঞানমন্ত্রীকে বিঁধলেন।চন্দ্রযান ২ অভিযানকে কটাক্ষ করায় টুইট বার্তায় বললেন ‘ওরা কি ভাবে বুঝবে, বিজ্ঞানের চূড়ান্ত জটিল পরীক্ষায় কি ধরণের সমস্যার সামনে পড়তে হয় , ফলে যাদের চর্চা নেই তারা আর কি
বুঝবে ।

এক টুইট বার্তায় বলেন ” যারা এই ধরনের কোনও কাজ কখনও করেনি তারা এই অভিযান কতটা জটিল তা বুঝতেই পারবে না। ফলে তারা এর প্রশংসাও করতে পারবে না। ইসরোর বিজ্ঞানীরা কঠোর পরিশ্রম করে চাঁদের মাটিতে বিক্রমকে খুঁজে বের করেছেন। ইসরো চেয়ারম্যানকে উত্সাহ দিয়েছেন খোদ প্রধানমন্ত্রী। তাঁর এই কাজ অত্যান্ত প্রসংশনীয়।” অনুমান যারা করতে পারেনা যে কি ধরণের পরিশ্রম করতে হয় এই উদ্যোগের মধ্যে ফলে ইসরোর বিজ্ঞানীরা কঠোর পরিশ্রম করে চাঁদের মাটিতে বিক্রমকে খুঁজে বের করেছেন। খোদ প্রধানমন্ত্রী ইসরো চেয়ারম্যানকে উত্সাহ দিয়েছেন। তাঁর এই কাজ অত্যান্ত প্রসংশনীয়।’

বলা যায় চন্দ্রযান-২ অভিযান এ বিক্রমের নিখোঁজ পর্ব নিয়ে দুই দেশের মধ্যে বাক যুদ্ধ নতুন মোর নিলো।বলা যায় চন্দ্রযান-২ অভিযান এ বিক্রমের নিখোঁজ পর্ব নিয়ে দুই দেশের মধ্যে বাক যুদ্ধ নতুন মোর নিলো।ওপর পক্ষে একের পর এক টু্ইট করেন পাক বিজ্ঞানমন্ত্রী , আর নিশানা করতে থাকেন ভারতকে ।পাক মন্ত্রী টুইট করেন , “চ্যালেঞ্জ নাও কেন যে কাজ করতে পার না তার ? ভারতের প্রধানমন্ত্রী কে তিব্র ভাষায় সমালোচনা করেন , বলেন ইসরোয় মোদী কে একজন মহাকাশচারী লাগছিলো , ওনি যে ভাবে বক্তব্য রাখছিলেন ।প্রশ্ন তোলেন ,বলেন ভারতের মতো একটি গরিব দেশের কি ৯০০ কোটি টাকা খরচ করার উচিৎ ?’ পাক বিজ্ঞান মন্ত্রী এই সমালোচনার করার আগে বুঝতে পারেন নি যে তারই দেশে তার বিরুদ্ধে ভারতের আগেই সোশ্যাল মিডিয়াতে তুলো ধোন হবেন তিনি ।

অন্য দিকে নামিরা সালিম একমাত্র মহিলা পাকিস্তানের একমাত্র মহাকাশচারী ভারতের চন্দ্রযান ২ অভিযানের প্রসংশা করেন ।পাক মহাকাশচারী নামিরা সালিম চন্দ্রযান-২ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, “চাঁদের দক্ষিণ মেরুতে ল্যান্ডার বিক্রমের সফট ল্যান্ডিংয়ের ঐতিহাসিক প্রচেষ্টার জন্য আমি ভারত আর ইসরোকে শুভেচ্ছা জানাই।” নামিরা বলেন , একটা বিরাট পদক্ষেপ এই অভিযান মহাকাশ গবেষণার ক্ষেত্রে সত্যিই । এই অভিযানে ভারত বা দক্ষিণ-পশ্চিম এশিয়াই নয়, লাভবান হবে গোটা বিশ্ব।

Tags
Show More

Related Articles

Back to top button
Close