Culture

চুরি হল কবি বিনয় মজুমদারের অমূল্য সম্পদ, চুরি গেল সাহিত্য অ্যাকাডেমি পুরস্কার।

অন্য কিছু নিয়ে গেল না চোর, শুধু পুরস্কার হাতিয়েই হয়ে গেল হাওয়া।

@ দেবশ্রী : হামেশাই কোনো না কোনো চুরির কথা শোনা যায়। তবে এবারে চুরি গিয়েছে, কবি বিনয় মজুমদারের সাহিত্য অ্যাকাডেমি পুরস্কার। সোমবার সন্ধেবেলা নাগাদ সাহিত্যিকের লাইব্রেরি থেকেই চুরি যায় পুরস্কার। ঠাকুরনগরের লাইব্রেরির দরজা খুলতেই চোখে পড়ে আলমারির ভাঙা তালা। তা দেখেই বিনয় মজুমদারের পরিজনেরা সাহিত্য অ্যাকাডেমি পুরস্কার খোয়া যাওয়ার ব্যাপারটি জানতে পারেন।

বিনয় মজুমদারের ঠাকুরনগরের বাসভবনের পাশেই অবস্থিত এই গ্রন্থাগার। সেখানেই রাখা থাকত বিনয় মজুমদারের সাহিত্য অ্যাকাডেমি পুরস্কার। তবে সোমবার সন্ধ্যায় ঠাকুরনগরে তার লাইব্রেরি খুলতে গিয়ে দেখা যায় গ্রন্থাগারের সেই ঘরের ছিটকিনি খোলা। আলমারির তালাও ভাঙা অবস্থায় পড়ে রয়েছে। আলমারিতে থাকা যাবতীয় জিনিস যথাস্থানে থাকলেও নেই শুধু অমূল্য পুরস্কারটি। আলমারির ভিতরে রাখা বিনয় মজুমদারের সাহিত্য অ্যাকাডেমি পুরস্কারটি নিয়ে পালিয়েছে চোর।

এই ঘটনাটি প্রথমে দেখতে পান, গন্থাগারের সম্পাদক বৈদ্যনাথ দলপতি। সোমবার বিকেল পাঁচটা নাগাদ তিনি বিনয় মজুমদারের গ্রন্থাগারে এসেছিলেন। প্রতিদিনের মতোই নির্ধারিত সময়ে। আর আসা মাত্রোই প্রথমে লক্ষ্য করেন যে লাইব্রেরির মূল দরজার তালা ভাঙা। তখনই সন্দেহ হয় সম্পাদক বৈদ্যনাথবাবুর। এরপরই তিনি তড়িঘড়ি করে লাইব্রেরির ভিতরে যান। প্রবেশ করতেই তাঁর চোখে পড়ে আলমারির ছিটকিনিটাও ভাঙা। এরপরই তিনি লাইব্রেরিয়ান জগদীশকে ডেকে পাঠান। এরপর সম্পাদক বৈদ্যনাথ দলপতি এবং লাইব্রেরিয়ান জগদীশ দুজনে মিলে আলমারির এদিক-ওদিক খুঁজেও পাননি সেই সাহিত্য অ্যাকাডেমি পুরস্কারের ফলক।

শুধু যে পুরস্কার খোয়া গিয়েছে এমনটাই নয়। সাহিত্য অ্যাকাডেমি পুরস্কারের সঙ্গে পাওয়া মানপত্রটিও নিতে ভোলেনি চোর। সেটিও সে সাথে করে নিয়ে গিয়েছে। তবে অবাক করার মতো ঘটনা যে লাইব্রেরিতে এত জিনিস থাকতেও, আর কিছুই চোরের ঝুলিতে যায়নি ওই পুরস্কার এবং মানপত্র ছাড়া। এমনটাই জানান ঠাকুরনগর বিনয় মজুমদার গন্থাগারের সম্পাদক বৈদ্যনাথ দলপতি।

খবর গিয়েছে পুলিশের কাছেও। ইতিমধ্যেই পুলিশ বিনয় মজুমদারের গ্রন্থাগারে এসে সম্পাদক বৈদ্যনাথ দলপতি এবং লাইব্রেরিয়ান জগদীশের সঙ্গে কথা বলে তদন্ত শুরু করেছে। তিনি আরও জানান, আগের দিন অর্থাত্‍ রবিবার রাত ৯টা নাগাদ গ্রন্থাগার কমিটিরই এক সদস্য লাইব্রেরির দরজা বন্ধ করে রেবিয়া যান।

কবিতা সংকলন ‘হাসপাতালে লেখা কবিতাগুচ্ছের’ জন্য বিনয় মজুমদার ২০০৫ সালে সাহিত্য জগতের সেরা সাহিত্য অ্যাকাডেমি পুরস্কারে সম্মানিত হন। ২০০৬ সালের ১১ ই ডিসেম্বর বিনয়বাবুর মৃত্যু পর পুরস্কারটি রাখা ছিল বিনয় মজুমদার স্মৃতি রক্ষা কমিটির গ্রন্থাগারের আলমারিতে।

Tags
Show More

Related Articles

Back to top button
Close