Health

জন্মের আগেই চিকিৎসকের গাফিলতিতে মায়ের গর্ভে ছিন্ন হয়ে যায় শিশুর মাথা ও দেহ !

আবারও অভিযোগ চিকিৎসাতে গাফিলতির, আবারও জন্মের আগেই প্রাণ হারায় ছোট্ট শিশু !

@ দেবশ্রী : ঘটে যায় একটি মর্মান্তিক ঘটনা। জন্মানোর আগেই চিকিৎসকের গাফিলতিতে মৃত্যু ঘটে শিশুর। এক মহিলার প্রসব করানোর সময় বাচ্চার মাথা ছিঁড়ে ফেললেন চিকিত্‍সক। বাকি দেহ থেকে গেল মায়ের গর্ভেই। মরণান্তিক এই ঘটনাটি ঘটে, তেলেঙ্গানার নগরকুরনুল এলাকার আচাম্পেট হাসপাতালে।

২৩ বছরের সাথী নামের অন্তঃসত্ত্বা নাদিমপল্লীর বাসিন্দা সন্তান প্রসবের জন্য হাসপাতালে ভর্তি হন গত ১৮ ডিসেম্বর। কিন্তু প্রসবের সময়েই ঘটে যায় একটি ভয়ঙ্কর দুর্ঘটনা। নর্ম্যাল ডেলিভারির জন্য নিয়ে যাওয়া হয়েছিল সাথীকে। পরিবারের অভিযোগ, প্রসবে কোনওরকম সমস্যার কথা হাসপাতালের তরফ থেকে আগে জানানো হয়নি।

সাথী সংবাদ মাধ্যমকে এক সাক্ষাত্‍কারে জানান, একটি ইনজেকশন দেওয়ার পর তাঁকে প্রথমে লেবার রুমে নিয়ে যাওয়া হয়। ডঃ সুধা রানি তাঁর প্রসবের দায়িত্বে ছিলেন। এছাড়াও আরও ২ জন পুরুষ চিকিত্‍সক তাঁকে সাহায্য করছিলেন।

কিছুক্ষণ পরেই সাথীর পরিবারকে জানানো হয়, রোগীর অবস্থা খুবই আশঙ্কাজনক। সঙ্গে সঙ্গে সাথীকে হায়দরাবাদের পেটলাব্রুজ মেটারনিটি হাসপাতালে স্থানান্তরিত করার সিদ্ধান্ত নেন চিকিত্‍সকরা। ১৫০ কিমি দূরের এই হাসপাতালে পৌঁছনোর পর সাথীর পরিবার জানতে পারেন, শিশুর দেহ মায়ের গর্ভের মধ্যেই রয়ে গিয়েছে। তবে শিশুর মাথা টানাটানিতে আগেই ছিঁড়ে গিয়েছে।

এরপরেই আচাম্পেট হাসপাতালে বিক্ষোভ, ভাঙচুর শুরু করেন সাথীর পরিবারের লোকজন। হাসপাতালের সুপার তারা সিং ও চিকিত্‍সক সুধা রানিকে বরখাস্ত করা হয় এমন ঘটনা ঘটানোর দায়ে। ইতিমধ্যেই গোটা ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

যেখানে ডক্টরদেরকে আমরা ভগবানের স্থানে বাসায়, সেখানে তারাই যদি এমন গাফিলতি করেন, তাহলে কি প্রকারে মানুষ বিশ্বাস করবে ?

Tags
Show More

Related Articles

Back to top button
Close