Nation

ডিজিটাল ইন্ডিয়ার যুগেও “কৃষ্ণের মতো বাঁশি বাজালে বেশি দুধ দেয় গরু “: অসমের বিজেপি বিধায়কের দাবি

অসমের বিজেপি বিধায়ক দিলীপকুমার পাল সম্প্রতি এমনই মন্তব্য করেছেন "বাঁশি বাজালে নাকি গরু বেশি দুটি দেয় "। এখানে একটু শর্ত আছে এ বাসি আবার যে সে বাঁশি হলে হবে না সাক্ষাত ভগবান শ্রী কৃষ্ণের স্টাইলে বাঁশিতেই বাজতে হবে।

সমের বিজেপি নেতা ও শিলচরের সামাজিক অনুষ্ঠানে গিয়ে দিলীপ কুমার পাল বলেন, “শ্রী কৃষ্ণের মতো বিশেষ সুরে বাঁশি বাজালে, স্বাভাবিকের তুলনায় কয়েক গুণ বেশি দুধ দেয় গরু। এটা প্রাচীন বিজ্ঞান। সেটাই বর্তমানে ফিরিয়ে আনতে হবে।” আর এই নিয়ে হাসাহাসি শুরু করে দেন উপস্থিত জনতা। নিছকই মস্করা টা খুব ভারী হয়ে জাতীয় স্তরের আলোচনাতে সংবাদ মাধ্যম বহন করবে এটা বোধ হয় ভাবেন নি দিলীপ বাবু।

তবে কুশলী রাজনীতিবিদ এই বিতর্কে যুক্তি খাড়া করার চেষ্টা করেছেন। দিলীপকুমার পালের বলেন , “আমি বিজ্ঞানী নই, কিন্তু প্রাচীন ভারতের ঐতিহ্য নিয়ে বেশ অনেকটাই পড়াশোনা করেছি। আর তখনই বুঝেছি যে এটা সম্ভব।” তিনি আরো বলেন ” হালফিলে বিজ্ঞানীরাও নাকি এই মতবাদ বিশ্বাস করতে শুরু করেছেন।অনুষ্ঠানের মঞ্চে দাঁড়িয়ে বিধায়ক এ-ও বলেছেন যে আধুনিক বৈজ্ঞানিকরা নাকি এই মতবাদ প্রমাণও রয়েছে । আর সেই প্রমানে ভগবান কৃষ্ণের কায়দায় বাঁশি বাজালে সেই সুরের প্রভাবে গরু বেশি পরিমাণ দুধ দেবে। প্রমানের দাবিতে একটি স্বেচ্ছাসেবী সন্থাকে শিখন্ডি করে বলেছেন বাঁশির সুরের সঙ্গে গরুর দুধের সম্পর্ক নিয়ে গুজরাটের একটি স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা নাকি কয়েক বছর আগে গবেষণাও করেছে।

আর এই বক্তব্য নিয়ে শোরগোল পড়েছে সোশ্যাল মিডিয়াতে। আমপাব্লিক হেসে গড়াচ্ছেন অনেকেই। টিপ্পুনি কেটে বলছেন অনেকেই ‘এটা ওদের দলের ঐতিহ্য। সম্প্রতি বেফাঁস মন্তব্যে প্রায় সব রাজ্যের শীর্ষে এবার আসাম এর নাম উঠে এলো, বেফাঁস মন্তব্য করতে বিজেপি নেতাদের জুড়ি মেলা ভার।কিছু দিন আগে ত্রিপুরের বর্তমান মুখ্যমন্ত্রী বিপল্ব দেব বলেছিলেন মহাভারতের যুগে ইন্টারনেট ছিল।নিউটনকেও টেনে এমনকী নিজের তত্ত্বকে প্রতিষ্ঠা করতে এনেছিলেন তিনি। মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব দেব বলেছিলেন “মহাভারতের সময়ে ইন্টারনেট ছিল। ইন্টারনেট এখন চালু হলেও আসলে ব্যাপারটা সেখান থেকেই নেওয়া। সব মিলিয়ে অনেক সমস্যার মধ্যে নিছকই মিয়া খুঁজে পাচ্ছেন অনেকে। তবে রাষ্ট্র শক্তির বৃদ্দির সাথে তাল মিলিয়ে রাজনৈতিক বেক্তিক্তের বড় অভাব , তা বার বার প্রকট হচ্ছে। আর এই নিয়ে ভরসার ভীত নড়বড়ে হচ্ছে বিজেপি।

Tags
Show More

Related Articles

Back to top button
Close