West Bengal

দিলীপ ঘোষের মন্তব্যে এবার সোচ্চার হলেন বাবুল সুপ্রিয়, কিন্তু তাঁকে উপেক্ষা করেই পাল্টা জবাব বিজেপি রাজ্য সভাপতির।

নিজের বিতর্কিত মন্তব্যে অনড় দিলীপ ঘোষ, তাঁর মতে কিছু ভুল বলেননি তিনি। উঠেছে সমালোচনার ঝড়।

@ দেবশ্রী : এবারে বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষের মন্তব্যকে নিন্দা জানালেন খোদ দলের সাংসদ বাবুল সুপ্রিয়। তবে তার পরেও নিজের বিতর্কিত মন্তব্য থেকে নড়লেন না দিলীপ ঘোষ। ‘গুলি মন্তব্যে’ নিজের অবস্থানে অনড় থেকেই দলের সাংসদ বাবুল সুপ্রিয়কে কার্যত গুরুত্ব দিলেন না বিজেপি রাজ্য সভাপতি। ‘সিএএ বিরোধী আন্দোলনকারীদের গুলি করে কুকুরদের মতো মারা উচিত’, দিলীপের এই মন্তব্যে তোলপাড় হয়ে গেছে রাজ্য রাজনীতি। দলের রাজ্য সভাপতির এই ধরনের নিন্দাজনক মন্তব্যকে ‘দায়িত্বজ্ঞানহীন’ বলে সোচ্চার হয়েছেন কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয়। এরপরই বাবুলকে উদ্দেশ্য করে দিলীপ ঘোষ বললেন, ”যে যেমন বোঝে, সে তেমন বলে। আমার যা মনে হয়েছে, আমি তা বলেছি। আমাদের সরকার করেছে, সুযোগ পেলে আমরাও করব”।

রবিবার নদিয়ায় একটি সভায় বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ বলেন, ”সরকারি সম্পত্তি নষ্ট করা হচ্ছে। কার টাকা এটা? এটা আমার, আপনার টাকা। ট্রেনে আগুন লাগানো হচ্ছে, কার টাকা এরা ধ্বংস করছে? এত কিছু সত্ত্বেও একটা গুলি চালানো হল না। কোনও লাঠিচার্জ-এফআইআর করা হল না। কাউকে পুলিশ গ্রেফতারও করেনি এখনও”। এরপরই দিলীপ ঘোষ আরও বলেন, ”যারা আগুন জ্বালিয়ে সম্পত্তি নষ্ট করছে, তাদের কি বাপের সম্পত্তি এগুলো? কীভাবে তারা সরকারি সম্পত্তি নষ্ট করতে পারে। আসাম, উত্তরপ্রদেশে আমাদের সরকার এই বিক্ষোভকারীদের কুকুরের মতো গুলি চালিয়েছে। তাদের গ্রেফতার করে মামলা রুজু করা হয়েছে। আমরা এদেরকে জেলে ভরব, গুলি করে মারব”।

দিলীপ ঘোষের এমন মন্তব্যের পর থেকে চারিদিকে উঠেছে তুমুল বিতর্কের ঝড়। একজন রাজ্য সভাপতি কীভাবে এমন কথা বলতে পারে, সেই নিয়ে উঠছে প্রশ্ন। দিলীপের মন্তব্য ঘিরে বিতর্ক শুরু হওয়ার পর টুইটারে আসানসোলের বিজেপি সাংসদ লেখেন, ”দিলীপ ঘোষ যা বলেছেন, তাতে বিজেপির কোনও সম্পর্ক নেই। এটা তাঁর কল্পনাপ্রসূত মন্তব্য। আসাম, উত্তরপ্রদেশে আমাদের সরকার কখনই কোনও কারণেই মানুষের উপর গুলি চালায়নি। খুবই দায়িত্বজ্ঞানহীন মন্তব্য করেছেন দিলীপদা, আর এর দায়িত্ব কোনোভাবেই দল নেবে না, এটি সম্পূর্ণ তাঁর ব্যক্তিগত মন্তব্য।”

এরপর আরও বেড়েছে ক্রমশ সমালোচনা। প্রশ্ন উঠছে, যে মানুষ এমন মন্তব্য করতে পারে সাধারণ মানুষদের জন্য তাহলে তিনি আরও কি কি করতে পারেন ? এছাড়া উনি এখন এতটাই জ্ঞানবুদ্ধিহীন ভাবে কথা বলেছেন, সেই মন্তব্যে ওনার দলের লোকেরাও পর্যন্ত নিন্দা জানাচ্ছে। এই মন্তব্যের সাথে দলের কোনো সম্পর্ক নেই বলে তারা স্পষ্টত জানিয়ে দিচ্ছে। তও কিছুই শিখছে না তিনি। এখন দেখার বিষয়, এই সব কিছুর কোনো জবাব দিলীপ ঘোষ দেন কী না, আর দিলেও কী সেটা আবার কোনো বিতর্কিত মন্তব্য হবে ?

Tags
Show More

Related Articles

Back to top button
Close