West Bengal

পারিবারিক দ্বন্দে, আত্মহত্যার চেষ্টা। নেই জীবনের মূল্য !

মানুষের কাছে যেন তাদের জীবনের কোনো দাম নেই। সামান্য থেকে সামান্যতম কারণেই মরিয়া নিজের জীবন দিতে।

@ দেবশ্রী : আবারও এক মর্মান্তিক ঘটনা। দূরপাল্লার ট্রেনে বগির মাথায় চেপে বসেন এক মধ্যবয়স্ক ব্যক্তি। আর সেটাই তার জীবনে কাল হয়ে দাঁড়ায়। ট্রেনের বগির মাথায় চেপে বসার পর, রেলের ওভারহেড তারে হাত দেওয়াতেই, ঝলসে যায় তার গোটা দেহ। ঘটনাটি ঘটে রবিবার সন্ধ্যে বেলা, মালদহ টাউন স্টেশনের এক নম্বর প্লার্টফর্মে। ওই ঝলসানো অবস্থাতেই তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। এই মুহূর্তে আশঙ্কাজনক অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি ওই ব্যক্তি।

প্রাথমিক তদন্ত হওয়ার পর জানা যায় ওই ব্যক্তির নাম, বিনোদ ভূঁইয়া। ঝাড়খণ্ডের রাঁচির বাসিন্দা তিনি। স্ত্রীর সাথে মনমালিন্য হওয়াতে, আত্মহত্যা করার চেষ্টা করেছিলেন তিনি। চিকিসকরা জানিয়েছেন, ওই ব্যক্তির শরীরের ৯০ শতাংশ পুড়ে গেছে। এই মুহূর্তে তাকে, বার্ন ইউনিটের ভেন্টিলেশনে রাখা হয়েছে। যতক্ষন না ৪৮ ঘন্টা কাটছে, তার আগে কিছুই বলা সম্ভব নয়। অবস্থা খুবই গুরুতর পর্যায়।

রোগীর পারিবারিক সূত্রের মাধ্যমে জানা যায় যে, এক আত্মীয়ের বিয়ের অনুষ্ঠানেই সপরিবারে মালদহ এসেছিলেন বিনোদ বাবু। দিল্লি যাওয়ার জন্য, রবিবার সন্ধ্যে সাড়ে ৬টা নাগাদ মালদহ টাউন স্টেশনে পৌঁছায় তারা। এক নম্বর প্লার্টফর্মে, দাঁড়িয়ে থাকা ফারাক্কা এক্সপ্রেসের মাঝামাঝি একটি কামরার ছাদে উঠে যান তিনি। কারোর কিছু বুঝতে পাড়ার আগেই তিনি রেলের ওভারহেডের তার ধরে ফেলেন। তৎক্ষণাৎ ঝলসে যায় তার শরীর। হাজার ভোল্টের শক খাওয়ার পর, বগি থেকে নিচে ছিটকে পড়ে যান। পুলিশ গোটা ঘটনাটির তদন্ত করছেন। জেরা করা হচ্ছে বিনোদবাবুর পরিবারকে।

Tags
Show More

Related Articles

Back to top button
Close