Big Story

পিছিয়ে পড়ছে বিজেপি। মানচিত্র পাল্টে তিন কেন্দ্রেই এগিয়ে চলছে তৃণমূল।

উপনির্বাচনের ভোটকে ঘিরে দেখা যায় অনেক কান্ড, অনেক সমালোচনা। প্রকাশ হতে চলেছে ভোট গণনার ফলাফল।

@ দেবশ্রী : চলছে উপনির্বাচনের ভোট গণনা, আর এখনও পর্যন্ত তিনটি কেন্দ্রেই এগিয়ে রয়েছে, তৃণমূল কংগ্রেস। খড়্গপুর, করিমপুর ও কালিয়াগঞ্জে পিছিয়ে পড়েছে বিজেপি। সকালের দিকে, খড়্গপুর ও কালিয়াগঞ্জে এগিয়ে গিয়েছিল তারা কিন্তু বেলা বাড়তেই পাল্টে যায়, মানচিত্র। এই মুহূর্তে দুটি কেন্দ্রেই পিছিয়ে পড়েছে দিলীপ ঘোষরা। করিমপুরে, একপ্রকার নিশ্চিত রূপে বলা যাচ্ছে যে, জয় তৃণমূলেরই হবে। খড়্গপুরে হারের মুখে রয়েছে বিজেপি। খড়্গপুরে তৃণমূল রয়েছে অনেকটা এগিয়ে। ১১৮৯৩ ভোটে এগিয়ে রয়েছে, তৃণমূলের প্রদীপ সরকার।

করিমপুরের ভোট গণনায়, তৃতীয় স্থানে রয়েছে, বিজেপি প্রার্থী জয়প্রকাশ মজুমদার। দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে, সিপিএম। করিমপুরে তৃণমূল এগিয়ে রয়েছে, ২৭৭৫১টি ভোটে। সকাল থেকে কালিয়াগঞ্জে ভোটের গণনাতে এগিয়ে ছিল বিজেপি কিন্তু সপ্তম রাউন্ডে এসে সেই মানচিত্রে দেখা যায় পরিবর্তন। এগিয়ে রয়েছেন তৃণমূল প্রার্থী তপন দেব সিংহ। বিজেপির কমলচন্দ্র সরকার, পিছিয়ে পড়েছে,

কালিয়াগঞ্জে সকাল থেকে লিড ধরে রাখছিল বিজেপি। কিন্তু সপ্তম রাউন্ডে উল্টে গেল ঘটি। সপ্তম রাউন্ড শেষে এগিয়ে গিয়েছেন তৃণমূল প্রার্থী তপন দেব সিংহ। ৩,২০৪ ভোটে পিছনে পড়ে গিয়েছে বিজেপির কমলচন্দ্র সরকার ৩,২০৪ ভোটে পিছিয়ে রয়েছে।

সোমবার সকালের দিকে বিজেপি প্রার্থী জয়প্রকাশ মজুমদার মার খানা আর সেই নিয়ে সোমবার দিনভর গোটা রাজ্যেই করিমপুর নিয়ে চর্চা হয়। বিধানসভা নির্বাচনে করিমপুরে প্রায় ১৬ হাজার ভোটে তৃণমূল জয়ী হয়। লোকসভা ভোটে এই কেন্দ্রে ঘাসফুলের প্রার্থীই প্রায় ১৪ হাজার ভোটে এগিয়েছিলেন। তবে, বিধানসভা নির্বাচনের তুলনায়, লোকসভা নির্বাচনে করিমপুরে তৃণমূলের ভোট প্রায় ৩ শতাংশ কমে যায়। চব্বিশ শতাংশ ভোট বাড়ে বিজেপির। প্রায় ১৮ শতাংশ ভোট কমে বাম-কংগ্রেসের।

খড়গপুর সদর বিধানসভায়, দিলীপ ঘোষ নিজে প্রার্থী না হলেও এই আসনের ভোটার সাথে রয়েছে তার এক আলাদা লড়াই। বিজেপি সভাপতির আশীর্বাদে ভরসা রেখেই প্রচারে বেরিয়েছিলেন দলের প্রার্থী। পুরসভা চেয়ারম্যান, পরিচিত মুখ প্রদীপ সরকারকে প্রার্থী করে বাজিমাতের চেষ্টায় তৃণমূল। বিধানসভা নির্বাচনে, খড়গপুরে প্রায় ৬ হাজার ভোটে জয়ী হন, বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। লোকসভা ভোটে এই কেন্দ্রে ৪৫ হাজার ভোটে এগিয়েছিলেন তিনি।বিধানসভা নির্বাচনের তুলনায়, লোকসভা নির্বাচনে, খড়গপুরে তৃণমূলের ভোট প্রায় ৮ শতাংশ বাড়ে। কিন্তু, বাম-কংগ্রেস-তৃণমূলের সম্মিলিত ভোটের চেয়েও বেশি ভোট যায় বিজেপির ঝুলিতে।

প্রিয়রঞ্জন দাশমুন্সির ঘরের মাঠ কালিয়াগঞ্জে, তৃণমূল কখনই খুব সুবিধা করতে পারেনিএই এলাকাতে। প্রয়াত কংগ্রেস বিধায়ক প্রমথনাথ রায়ের কন্যা ধীতাশ্রী রায়, এবার এই আসনে বামেদের সমর্থনে কংগ্রেসের প্রার্থী। গত বিধানসভা নির্বাচনে, কালিয়াগঞ্জে প্রায় ৪৭ হাজার ভোটে জয়ী হয়েছিল কংগ্রেস। কিন্তু গত লোকসভা ভোটে এই কেন্দ্রে ৫৭ হাজার ভোটে এগিয়ে যায় বিজেপি। বিধানসভা নির্বাচনের তুলনায়, লোকসভা নির্বাচনে কালিয়াগঞ্জে তৃণমূলের ভোট প্রায় ৪% কমে যায়। বাম-কংগ্রেস-তৃণমূলের মিলিত ভোটের চেয়েও বেশি ভোট পায় বিজেপি।

এখন অপেক্ষা শুধু মাত্র কয়েক ঘন্টার তারপর জানা যাবে, কত গুলো ভোটে কোন প্রার্থী এগিয়ে রইল, কোন দল পিছিয়ে গেল। কিছুক্ষন পর, পুরো ভোটের মানচিত্র কেমন হতে পারে তা কিছুটা আন্দাজ করা গেলেও নিশ্চিত রূপে এখনও কিছু বলা যাচ্ছে না।

Tags
Show More

Related Articles

Back to top button
Close