Big Story

মুখোমুখি হলেন মোদী ও মমতা, রাজভবনে হল শীর্ষ বৈঠক।

নাগরিকত্ব আইন, এনআরসি এবং এনপিআর নিয়ে আর তার পাশাপাশি রাজ্যের পাওনা টাকা নিয়েই প্রধানমন্ত্রীর সাথে হয়েছে কথা বলে জানান মমতা বন্দোপাধ্যায়।

@ দেবশ্রী : নির্বাচনের পর, এই প্রথমবার প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী এলেন কলকাতা সফরে। তবে তাঁরা আসার আগে থেকেই চারিদিকে চলছিল বিক্ষোভ-আন্দোলন। আর তার মধ্যেই মোদী ও মমতার বৈঠক নিয়ে উঠেছিল অনেক প্রশ্ন। এনআরসি ও সিএএ এর বিরোধিতা করার পরেও কেন প্রধানমন্ত্রীর সাথে তাঁর বৈঠক সেই নিয়েও হয় অনেক গঞ্জনা। তবে সেই সব কিছু আবহাওয়াকে উপেক্ষা করে রাজভবনে হয়ে যায় মোদী ও মমতার বৈঠক।

বৈঠক সারার পরেই, সাংবাদিকদের সাথে কথা বলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায়। শনিবার প্রধানমন্ত্রীর কনভয় রাজভবনে পৌঁছে যাওয়ার আগেই সেখানে পৌঁছে গিয়েছিলেন মমতা। তারপর দু’জনের মিনিট ১৫-র বৈঠক হয়।

বৈঠক শেষে রাজভবনের বাইরে এসে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, রাজ্যের যা পাওনা আছে সেই সব কিছুর দাবি জানিয়েছেন তিনি। সেইসঙ্গে এনআরসি, নাগরিকত্ব আইন প্রত্যাহারের দাবিও জানানো হয়েছে প্রধানমন্ত্রীর কাছে। বৈঠকের পর মুখ্যমন্ত্রী সাংবাদিকদের বলেন, ‘আমাদের ২৮ হাজার কোটি টাকা পাওনা আছে কেন্দ্রের কাছে। আমরা বলেছি রাজ্যের পাওনা যেন তাড়াতাড়ি মিটিয়ে দেওয়া হয়। সেই সঙ্গে নাগরিকত্ব আইন, এনআরসি এবং এনপিআর নিয়ে আমাদের আপত্তির কথা জানিয়েছি।’

মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘আমি প্রধানমন্ত্রীকে বলেছি, মানুষে মানুষে বৈষম্য হওয়া উচিত নয়। কোনও মানুষ যেন অত্যাচারিত না হয়। আপনারা ভাবনা চিন্তা করুন।’ মুখ্যমন্ত্রী বলেন, এই মুহূর্তে যেহেতু প্রধানমন্ত্রী কিছু বিশেষ অনুষ্ঠানে এসেছেন এবং হাতে তেমন সময় নেই, তাই এনআরসি এবং নাগরিকত্ব আইনের ব্যাপারে প্রয়োজনে দিল্লিতে কথা বলবেন। এটা এখানে কিছু বলতে পারবেন না।’ তবে এই বৈঠক হওয়ার পর থেকেই শুরু হয়েছে নানান দিকে নানান সমালোচনা।

Tags
Show More

Related Articles

Back to top button
Close