Analysis

রাজীব কুমার নিখোঁজ রহস্যে আতঙ্কিত সৌমেন মিত্র : আশঙ্কা ওনি কি খুন হলেন ?

রাজ্য ময় একটাই প্রশ্ন রাজ্যের প্রাত্তন পুলিশ কমিশনার কোথায় ? প্রাথমিক ধারণার হাত ধরে বহু জায়গায় হানা দিয়ে ক্লান্ত সিবিআই । নতুন খোঁজের সন্ধানে।কংগ্রেস রাজ্য সভাপতি উৎকণ্ঠা প্রকাশ করেছেন।

তাও হয়ে গেল দিন ১২ , কোন খোঁজ নেই। একদল পুলিশ আরেক দুদে পুলিশ অফিসার কে খুঁজছেন। প্রাথিম ভাবে পরিবার থেকে পুলিশ সহ কর্মীরা কেউই জানেন না তিনি কোথায় আছেন। এই ক্ষেত্রে রাজনৈতিক সমালোচকরা বলছেন ,তবে আগাম জামিনের জন্য যখন মরিয়া চেষ্টা চালাচ্ছে তাতে কংগ্রেস নেতা সৌমেন মিত্রের আশঙ্খা অনুযায়ী ওই ধরণের কিছু ঘটে নি।

সৌমেন মিত্রের ধারণা কে একদমই উড়িয়ে দেওয়া যায় না , কারণ বহু ক্ষেত্রে এই ধরণের ঘটনা আমাদের দেশ সহ অন্যান্য দেশে ঘটেছে , আর এর পিছনে সব সময়ই একটি রাজনৈতিক মোটিভ থাকে। এই আশঙ্খা নিয়ে একটি সংবাদ মাধ্যম কে দেওয়া সাক্ষাৎকারে এই মতামত প্রকাশ করেন বর্ষীয়ান কংগ্রেস নেতা সৌমেন মিত্র।তিনি আরো বলেন ২০১৩ সালে সারদা কেলেঙ্কারি প্রকাশ্যে আসলে তার তদন্তের জন্য গঠন করা হয় স্পেশাল ইনভেস্টিগেশন টিম। সেই টিমের মাথা করা হয় বিধাননগর কমিশনারেটের তত্কালীন প্রধান রাজীব কুমারকে।

সৌমেন মিত্র সিউড়িতে একটি দলীয় সভায় যোগ দিতে এসে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হতে জানান রাজীব কুমার প্রসঙ্গে , ” সারদা মামলায় রাজ্য সরকারের বহু প্রভাশালী নেতা জেল খেটেছেন। রাজীব কুমারকে বাঁচাতে ধর্মতলা ধরনায় বসেছিলেন খোদ মুখ্যমন্ত্রী। তিনি ধরা পড়লে দলের অনেক রথি মহারথির রাজনৈতিক জীবনই শেষ হয়ে যাবে এবং সরকারের অস্তিত্ব নিয়েই প্রশ্ন দেখা দেবে। এখন সিবিআই যেভাবে এগোচ্ছে তাতে ওকে মেরে ফেলা ছাড়া আর কোনও রাস্তা নেই। সেই জন্যই আমাদের ভয় হচ্ছে, ওকে মেরে না দেয়।”

সিবিআই সূত্রে জানা যাচ্ছে আলিপুর আদালতে আগাম জামিনের ক্ষত্রে রাজীব কুমার নিজেই সই করেছেন। এক্ষেত্রে আইনজীবীরা ভেবে ছিলেন রাজীব কুমারের জায়গায় তার স্ত্রী সঞ্চিতা কুমার কে দিয়ে সই করবেন কিন্তু সেক্ষেত্রেও রাজীব কুমার নিজেই সই করেন ওকালতনামায় ফলে সিবিআইয়ের দাবি রাজ্যের কিছু প্রভাবশালীদের ডেরায় রয়েছেন রাজীব কুমার। কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থাকে রাজীব কুমারের স্ত্রী জানান যে হাই কোটের রাইয়ের পর তার সাথে তার স্বামীর কোন যোগাযোগ হয় নি।বলাই বাহুল্য পুজোর আগেই রাজীব কুমার কে সিবিআই তাদের হেফাজতে নেবার মরিয়া চেষ্টা চালাচ্ছে। এক্ষেত্রে রাজ্যের বহু প্রভাবশালীদের কে নরকে রেখে চলেছেন সিবিআই। তাই পুজোর বাজারে অনেকেই বেশি সতর্কের সাথে চলছে বলা যায়।

Tags
Show More

Related Articles

Back to top button
Close