Environment

সবাই যখন গৃহবন্দী, পরিবেশ তখন দূষণ মুক্ত।

এত ভয়ের মধ্যেও রয়েছে একটা ভালো খবর, দীর্ঘ অনেক বছর পর আবারও পরিবেশ হল সতেজ।

@ দেবশ্রী : চারিদিকে করোনার ত্রাস। ঘরবন্দি মানুষ। রাস্তা এখন ফাঁকা। আর এই সময়েই নতুন ভাবে বেঁচে উঠেছে আমাদের পরিবেশ। শহরে কমছে দূষণের পরিমান। পশ্চিমবঙ্গ পলিউশন কন্ট্রোল বোর্ডের তথ্য সেই কথাই জানাচ্ছে, আজ সোমবার বালিগঞ্জের দূষণমাত্রা ৯১। জ্বলছে সবুজ সঙ্কেত। বিধাননগর অঞ্চলের দূষণমাত্রা ১৫৯। যা সন্তোষজনক। ফোর্ট উইলিয়ামে দূষণমাত্রা ১৩২। সঙ্কেত হলুদ, অর্থাত্‍ মোটের উপর ভালোই। মোটামুটি বললেও ভুল হবে না। শ্বাস নেওয়ার যোগ্য। যাদবপুরের দূষণমাত্রা ৩৭। অর্থাত্‍ ভীষণ ভাবে ভালো। সঙ্কেত যথেষ্ট সন্তোষজনক। রবীন্দ্রভারতীতে দূষণমাত্রা ৪৪। রবীন্দ্র সরোবরে ৪৬। ভিক্টোরিয়ায় দূষণমাত্রা অল্প একটু বেশি,১৯৭। তবু মাত্রার রঙ হলুদ অর্থাত্‍ ভালো রয়েছে আমাদের পরিবেশ।

গত শনিবার বালিগঞ্জের দূষণমাত্রা মাত্র ছিল ৯৮। জ্বলছিল সবুজ সঙ্কেত। বিধাননগর অঞ্চলে দূষণমাত্রা ছিল ৯৮। এখানেও সঙ্কেত সবুজ। ফোর্ট উইলিয়ামে দূষণমাত্রা ছিল ১৩২। যাদবপুরের দূষণমাত্রা ছিল ১০০। সঙ্কেত যথেষ্ট সন্তোষজনক। রবীন্দ্রভারতীতে দূষণমাত্রা ছিল ১২৫। রবীন্দ্র সরোবরে ৯৪। ভিক্টোরিয়ায় দূষণমাত্রা অল্প বেশি, ১৫৫। চিত্র বলে দিচ্ছে, মাত্র দুই দিনের ফারাকে প্রায় প্রত্যেকটি অঞ্চলের দূষণমাত্রা ব্যাপকভাবে কমেছে। ব্যাতিক্রমী বিধাননগর ও ভিক্টোরিয়া। আশা করা যায় সেখানেও কমে যাবে পরিবেশের দূষণমাত্রা।

অন্যদিকে, শনিবার থেকেই আইসোলেশনে চলে গিয়েছে গোটা দেশ। চারিদিকে এখন শুধু আতঙ্কের একটাই নাম করোনা ভাইরাস। এই অবস্থায় রবিবার গোটা দেশ জুড়ে পালিত হয় জনতা কার্ফু দিবস। ১৪ ঘন্টার এই জনতা কার্ফু করোনা মোকাবিলায় কতটা হিতকারী হবে তা এখনই বলা সম্ভব নয়। তবে রবিবারে দেশের অধিকাংশ মানুষ গৃহবন্দী থাকায় অনেক দিন পর সতেজ বাতাসের শ্বাস নিতে পেরেছে। গোটা দেশেই বায়ু দূষণের মাত্রা একলাফে অনেকটাই কমে গেছে। অন্যদিকে গত ডিসেম্বর মাস থেকে করোনা ভাইরাসের জেরে চিনের বায়ু দূষণও একলাফে অনেক কমে গিয়েছে।

এবার ভারতের ক্ষেত্রেও সেই একই চিত্র দেখা গেছে। যদিও এই রোগ মোকাবিলার পাশাপাশি দূষণমুক্ত বাতাসে মানুষ কতদিন শ্বাস নিতে পারবে তা সবই সময় বলবে। এদিকে কেন্দ্রীয় দূষণ নিয়ন্ত্রণ পর্ষদের পরিসংখ্যান জানাছে, এদিন দেশের মোট ১১৪টি শহরের দূষণ চিত্র পরিমাপ করা হয়েছিলো। সেখানে দেশের ৬৭টি শহরের বাতাসে দূষণের মাত্রার পরিমান ছিলো সন্তোষজনক।

Tags
Show More

Related Articles

Back to top button
Close