Nation

সম্পর্কের ঘোর প্যাঁচেই তৈরী হয় মরনফাঁদ।

বৈবাহিক সম্পর্ক হোক কিংবা পরকীয়া সম্পর্ক সমস্যা লেগেই থাকে, আর তার থেকেই কিছু জন বুনছে মরণজাল।

@ দেবশ্রী : পরকীয়ার জেরে, আবারও হয় মৃত্যু। প্রথমে গুলি করে খুন আর তারপর নিজেই আত্মঘাতী। ঘটনাটি বুধবার সকালের। বুধবার সকালে দিল্লির রোহিণী অঞ্চলে দীর্ঘক্ষণ একটি ফোক্সভাগেন ভেন্টো গাড়ি দাঁড়িয়ে থাকতে দেখে সন্দেহ হয় পথচারীদের। স্থানীয়রা খবর দেন পুলিশে। ঘটনাস্থলে পুলিশ এসে দেখেন, গাড়ির ভিতরে পড়ে রয়েছে এক মধ্যবয়স্ক নারী ও পুরুষের মৃতদেহ।

রোহিণী পুলিশের ডেপুটি কমিশনার এস ডি মিশ্র বলেন, প্রাথমিক তদন্তের মাধ্যমে জানা গিয়েছে, মৃত ব্যক্তি পেশায় একজন চিকিত্‍সক ছিলেন। তাঁর বয়স ৬২। মৃত মহিলা ছিলেন এক হাসপাতালের এমডি। তাঁর বয়স হয়েছিল ৫৫। পুলিশ জানতে পারেন, চিকিত্‍সক নিজের লাইসেন্সড রিভলভার থেকেই গুলি করে মহিলাকে হত্যা করেছেন। পরে গুলি করে আত্মঘাতী হয়েছেন।

এস ডি মিশ্র বলেন, ডাক্তারের সঙ্গে মহিলার ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক ছিল। মহিলা বিয়ে করার জন্য ডাক্তারকে চাপ দিচ্ছিলেন। আর সেই থেকেই শুরু অশান্তির। তাই চিকিত্‍সক, মহিলাকে হত্যা করে নিজে আত্মঘাতী হন। প্রাথমিক তদন্তে জানা যায়, চিকিত্‍সক ছিলেন বিবাহিত। তাঁর এক ছেলে ও এক মেয়ে আছে। তাঁরা দু’জনেই চিকিত্‍সক। ছেলে দেশের অন্য এক শহরে ডাক্তারি করেন। এবং মেয়ে দিল্লিতেই চিকিত্‍সা করেন। মৃত মহিলার পরিবার সম্পর্কে এখনও পর্যন্ত কোন তথ্য পাওয়া যায়নি।

বুধবার সকাল পৌনে আটটা নাগাদ রোহিনীর সেক্টর ১৩ অঞ্চলে ফোক্সভাগেন গাড়িটি দাঁড়িয়ে থাকতে দেখা যায়। গাড়িটি ভেতর থেকে বন্ধ ছিল। গাড়ির কাচ ভেঙে দু’টি দেহ উদ্ধার করেন পুলিশ। মহিলার বুকে গুলি লেগেছিল, আর ডাক্তার গুলি করেছেন নিজের মাথায়। গোটা বিষয়টির এখন তদন্ত চালাচ্ছে পুলিশ।

Tags
Show More

Related Articles

Back to top button
Close