Nation

‘সরকারের লক্ষ্য আগামী তিন মাস দেশবাসী যেন অভুক্ত না থাকে’, বললেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী।

করোনা মোকাবিলায় নয়া উদ্যোগ।

পল্লবী : করোনার সংকটজনক পরিস্থিতির মোকাবিলায় ১ লাখ ৭০ হাজার কোটি টাকার প্যাকেজ ঘোষণা করল কেন্দ্র সরকার। বৃহস্পতিবার সাংবাদিক বৈঠক করে জনসাধারণের জন্য একাধিক আর্থিক অনুদানের কথা জানান কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমণ। উপস্থিত ছিলেন প্রতিমন্ত্রী অনুরাগ ঠাকুরও। তাঁরা জানান, করোনা আক্রান্ত, চিকিত্‍সক ও স্বাস্থ্যকর্মীদের জন্য মাথা পিছু ৫০ লাখ টাকা করে বিমা করবে কেন্দ্র সরকার। একইসঙ্গে প্রধানমন্ত্রী অন্নধন যোজনায় অন্তর্গত পরিবারগুলির জন্য আগামী তিনমাস বাড়তি খাদ্যশস্যও দেওয়া হবে। বাড়ানো হল মনরেগা প্রকল্পের মজুরি বাড়ানো হল। আরও বেশকিছু সুবিধার ঘোষণা করেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী। তাঁর কথায়, ‘সরকারের লক্ষ্য আগামী তিন মাস দেশবাসী যেন অভুক্ত না থাকে। তাঁদের হাতে অর্থের যথেষ্ট জোগান থাকে।’

কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী জানিয়েছেন, দেশের কৃষকরা আপাতত বছরে ছয় হাজার টাকা আর্থিক অনুদাৈন পান। চলতি আর্থিক বছরের শুরুতে এপ্রিলের প্রথম সপ্তাহে তাঁদের অ্যাকাউন্টে দু হাজার টাকা করে দেওয়া হবে। বাড়ানো হল মনরেগার মজুরিও। ১০০ দিনের কর্মীদের দিন প্রতি মজুরি ১৮২ টাকা থেকে বাড়িয়ে ২০২ টাকা করা হল। দেশের বিধবা, দিব্যাঙ্গ, ষাটোর্ধ্ব ব্যক্তি যারা কেন্দ্র সরকারি ভাতা পান, তাঁদের ব্যাংক অ্যাকাউন্টে একলপ্তে ২০০০ টাকা করে দেওয়া হবে। জনধন যোজনার সুবিধা পান এমন মহিলাদের অ্যাকাউন্টে পাঁচশো টাকা করে আগামী তিনমাস দেবে সরকার। এই সুবিধা পাবেন দেশের অন্তত ২০ কোটি মহিলা। স্বনির্ভর গোষ্ঠীর ক্ষেত্রে বিনা শর্তে ঋণের পরিমাণ বাড়িয়ে করা হল ২০ লাখ টাকা।

সরকারি ঘোষণা অনুযায়ী, বিপিএল কার্ড হোল্ডারদের আগামী তিন মাস বাড়তি পাঁচ কেজি চাল বা আটা, সঙ্গে এক কেজি ডাল দেওয়া হবে। দুদফায় এই খাদ্যশস্য মিলবে। গোটা দেশে প্রায় ৮০ কোটি মানুষ এই প্রকল্পের সুবিধা পাবে বলে মনে করছে সরকার।উজ্জ্বলা যোজনার অন্তর্গত মহিলাদের আগামী তিন মাস বিনামূল্যে গ্যাস সিলিন্ডার দেওয়া হবে। পাশাপাশি, দেশবাসীর হাতে নগদ অর্থের জোগান দিতে একাধিক পদক্ষেপ করল কেন্দ্র সরকার।

বিশেষ প্যাকেজ ঘোষণা করা হল সংগঠিত ক্ষেত্রের কর্মীদের জন্যেও। যাঁদের মাসিক বেতন ১৫ হাজার টাকার কম ও যে সমস্ত সংস্থার কর্মী সংখ্যা ১০০ জনের চেয়ে কম আগামী তিনমাস তাঁদের ইপিএফও-র সম্পূর্ণ টাকা দেবে সরকার। একইসঙ্গে ইপিএফের নিয়মেও কিছু রদবদল করা হল। জরুরি পরিস্থিতিতে এই ফান্ড থেকে জমানো টাকার ৭৫ শতাংশ তুলতে পারবেন কর্মীরা। পাশাপাশি নির্মাণকর্মীদের জন্য একাধিক সুবিধা ঘোষণা করেছে কেন্দ্র সরকার।

Tags
Show More

Related Articles

Back to top button
Close